1. mdasif669638@gmail.com : Md Asif : Md Asif
  2. admin@banglafeature.com : বাংলা ফিচার : Alamgir Hossain
  3. mdr93557@gmail.com : Rasel Miah : Rasel Miah
  4. sumonahammed714@gmail.com : Sumon Ahammed : Sumon Ahammed
  5. taifurislam94040@gmail.com : Taifur Islam : Taifur Islam
Jose Mujica পৃথিবীর সবচেয়ে দরিদ্র প্রেসিডেন্ট (জোসে মজিকা) - নিউজ বাংলা। বাংলা ফিচার
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০১:৫০ অপরাহ্ন

Jose Mujica পৃথিবীর সবচেয়ে দরিদ্র প্রেসিডেন্ট (জোসে মজিকা)

আসিফ
  • Update Time : শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১
  • ৪১০ Time View
jose mujica
jose mujica
81 / 100

jose mujica   কেমন আছেন বন্ধুরা। আশা করি সবাই ভালো আছেন। আজকে আপনাদের জানাবো পৃথিবীর সবচেয়ে দরিদ্র প্রেসিডেন্ট সম্পর্কে। কোনো দেশের রাষ্ট্রপতি বলতে সাধারনত আমরা বুঝি খুব ধনী, ক্ষমতাবান,কোটি কোটি অর্থের মালিক খুব বিলাসবহুল জীবন।

কিন্তু আজ এমন একজন রাষ্ট্রপতি কথা বলবো যিনি পৃথিবীর সবচেয়ে গরিব রাষ্ট্রপতি। আলিশান বাড়ি, দামি গাড়ি কিছুই ছিল না তারা।

নাম তার জোসে মজিকা (jose mujica)

তিনি উরুগুয়ের একজন প্রধান রাজনীতিবিদ এবং পাশাপাশি একজন কৃষক ছিলেন

jose mujica

jose mujica

। এ ছাড়াও তাঁর আরেকটি পরিচয় রয়েছে তিনি বিশ্বের শ্রেষ্ঠ নেতাদের মধ্যে একজন। (jose mujica) প্রেসিডেন্সি পাওয়ার আগেই তিনি কঠোর পরিশ্রম করেছেন শুধু তার নিজের দেশের মানুষের জন্য।

 

বিদ্রোহীদের একটি দলে যোগ দেন তিনি যার জন্য তাকে ১৪ বছর জেল খাটতে হয়। যেখানে অমানুষিক অত্যাচার করা হয় তাকে। তবুও নিজের আদর্শ থেকে বেরিয়ে আসেননি তিনি। আর এ লরাইয়ে দেওলিয়া হয়ে যান তিনি।

 

(jose mujica) ২০১৫ সালে উরুগুয়ের ৪০ তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর তার বেতনের ৯০ ভাগ তিনি দান করেদিতেন। তাঁর মতে তার প্রয়োজনের তুলনায় বেশি আয় করতেন তিনি। আর শুধুমাত্র প্রেসিডেন্ট হওয়ার জন্যই তার জীবন যাপনের মান তিনি পাল্টাতে চান না। তাই অতিরিক্ত অর্থ অসহায়দের জন্য বরাদ্দ করতেন তিনি।

 

এছাড়াও প্রেসিডেন্ট হওয়া সত্বেও তিনি প্রেসিডেন্টশিয়াল ভবন কিংবা গাড়ি কোনোটাই ব্যবহার করতেন না। তার স্ত্রীর এক বেডরুমের একটি ফার্ম হাউসে থাকতেন তিনি এবং পুরোনো একটা গাড়ি ছিল তার। সেটা তিনি নিজেই চালাতেন।

 

এমনকি এত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব হওয়া সত্বেও তার মাত্র দু’জন দেহরক্ষী ছিল। যাদেরকে তিনি নিজের পরিবারের মতই ভালবাসতেন।

 

যেখানে প্রত্যেক দেশের রাজনৈতিক প্রার্থীরা মেয়াদ শেষ হলে পুনরায় ক্ষমতায় আসতে নির্বাচন করেন তিনি সেই প্রথায় বিশ্বাসী ছিলেন না। পুনরায় নির্বাচনের চরম বিরোধী ছিলেন তিনি। তার মতে প্রেসিডেন্ট কোন ঈশ্বর নন যে তাকে পরিবর্তন করা যাবে না। তিনি কেবল জনগণের চাকর মাত্র। তাই বারবার একই মানুষকে এই পদে আসীন করার যুক্তি নেই। সবারই মানুষের সেবা করার সুযোগ পাওয়া উচিত।

 

 

এমনকি প্রেসিডেন্ট পদ থেকে সরে যাওয়ার পরও তিনি সিনেটর হিসেবে মানুষের জন্য কাজ করে গিয়েছেন। যার জন্য নিজের অবসরভাতা পর্যন্ত বিসর্জন দেন তিনি আর এ কারণেই আজ ও মানুষ তাকে এত ভালবাসেন এবং শ্রদ্ধা করেন। (jose mujica)

 

বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

পুকুরে শিং মাছ চাষ করলে অধিক লাভ দেখে নিন কিভাবে চাষ করা হয়

ফেসবুকে যুক্ত হউন

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 Banglafeature
Theme Customized BY LatestNews