fbpx
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:৪৩ অপরাহ্ন

বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

সুমন আহম্মেদ / ৪৬২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

83 / 100

আসসালামু আলাইকুম আশা করি আল্লাহর রহমতে আপনারা সকলেই ভাল আছেন। আজকে আপনাদেরকে জানাবো বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং তাদের জীবন যাপন সম্পর্কে যাদের উপর নির্ভর করে আমাদের বাংলাদেশের উন্নতি ও অবনতি। আর মজার বিষয় হচ্ছে এ সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো পরিবারকেন্দ্রিক অর্থাৎ কয়েকটি পরিবারের কাছেই আমাদের দেশের অর্থনীতির উন্নতি এবং অবনতি নির্ভর করে। এ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো:

বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

১০. সিটি গ্রুপ: কোম্পানিটির যাত্রা শুরু হয়েছিল সরিষার তেল তৈরির কারখানা দিয়ে, আর তারা এখন বাংলাদেশের শীর্ষ ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি। আপনারা কোন না কোন ভাবেই সিটি গ্রুপের পণ্য ব্যবহার করেছেন যেমন তীর সরিষার, তেল আটা, ময়দা, সুজি এসবই সিটি গ্রুপের পণ্য যাত্রাবাড়ী আজগর আলী হাসপাতাল এ গ্রুপের।

স্বাধীনতার পরে ১৯৭২ সালে ব্যবসায়ী ফজলুল হক সিটি অয়েল মিলস্ প্রতিষ্ঠা করেছিল আর এই ছোট একটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে যাত্রা শুরু হয় সিটি গ্রুপে ১০ হাজারের বেশি কর্মকর্তা আছে সিটি গ্রুপে, প্রতি বছর ১০০ কোটি টাকার উপরে মুনাফা অর্জন করে সিটি গ্রুপ। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ১০ নাম্বার তালিকায়।

 

 

৯. ইউনাইটেড গ্রুপ: ১৯৭৮ সালে কয়েক বন্ধু মিলে ধার করে টাকা জমিয়ে খুলে ছিল একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান তার নাম দেওয়া হয়েছিল ইউনাইটেড গ্রুপ। শূন্য থেকে শুরু করা এই ইউনাইটেড গ্রুপ কাজে এগিয়েছে অনেক দূর পর্যন্ত: ইউনাইটেড হাসপাতাল , বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি|

এসব ছাড়াও অনেক প্রতিষ্ঠানের মালিক তারা শিক্ষা চিকিৎসা সহ জ্বালানি, রেস্টুরেন্ট ,আবাসন হোটেল থেকে শুরু করে বেসরকারি লঞ্চঘাট, বন্দর, বিভিন্ন রকম ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত এই ইউনাইটেড গ্রুপ তাদের সম্পদের মূল্য প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকার ও বেশি।এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ৯ নাম্বার তালিকায়।

 

 

৮. বেক্সিমকো গ্রুপ: বাংলাদেশের বাজারে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ এ কম্পানির সালমান এফ রহমান এ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা এবং তিনি যেখানে যায় হেলিকপ্টার নিয়ে যায় মূলত ওষুধ তৈরির মাধ্যমে যাত্রা শুরু করেছিল বেক্সিমকো এখন ওষুধের বাইরে ও গার্মেন্টস, আবাসন, মিডিয়া সহ নানা রকম ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত বেক্সিমকো, ১০৩ টি দেশে রপ্তানি হয় বেক্সিমকোর পণ্য।

আইএফআইসি ব্যাংক, ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশন, ইয়োলো এবং বিপিএলে ঢাকা ডায়নামাইটস সহ আরো শতাধিক প্রতিষ্ঠানের মালিক তারা। প্রতিদিন ৬৫ হাজার শ্রমিক কাজ করে তাদের অধীনে বেক্সিমকোর মোট সম্পত্তির পরিমাণ দেড় বিলিয়ন ডলার এর চেয়েও বেশি। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ৮ নাম্বার তালিকায়।

 

 

৭. আকিজ গ্রুপ: সামান্য একটি বিড়ির ব্যবসা থেকে যাত্রা শুরু হয় আকিজ গ্রুপের বাংলাদেশ সরকার কে সবচেয়ে বেশি কর তারাই দেয়। ১৯৪০ সালে তামাক দিয়ে ব্যবসা শুরু করলেও বর্তমানে টেক্সটাইল, তামা, সিরামিক, পেইন্টিং, ঔষধ আরো অনেক খাতেই ব্যবসা করে যাচ্ছে আকিজ গ্রুপ বর্তমানে তাদের সবচেয়ে বেশি আয় হয় আকিজ ফুড এন্ড ডেভারেজ থেকে।

যেমন: মজো, স্পিড আরো অনেক জন্য রয়েছে তাদের হাতে ৭০ হাজারের বেশি কর্মচারী কাজ করে আকিজ গ্রুপে তারা বেশ কয়েকবার শীর্ষ করদাতা হয়েছিল। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ৭ নাম্বার তালিকায়।

 

৬. টি.কে গ্রুপ: পুষ্টি সয়াবিন তেল বিক্রি করে দেশের শীর্ষ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছিল টি.কে গ্রুপ ১৯৫০ সালে পাকিস্তান আমলে শুরু হওয়া এ প্রতিষ্ঠান আছে জাহাজ ভাঙার কারখানা, স্টিলমিল ,চা বাগান, জাহাজ ব্যবসা সহ আরো নানা রকমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ৩০ হাজারের বেশি কর্মচারী কাজ করেন এই টি.কে গ্রুপে প্রতিবছর ২৫০ কোটি টাকা আয় করে টিকে গ্রুপ। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ৬ নাম্বার তালিকায়।

 

 

৫. স্কয়ার গ্রুপ: স্কয়ার গ্রুপের নাম শোনেননি এমন মানুষ খুব কমই আছেন স্কয়ার কোম্পানির রয়েছে স্কয়ার ফার্মা, মাছরাঙ্গা টেলিভিশনসহ আরো অসংখ্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। স্যামসাং এইচ চৌধুরীর হাতে যাত্রা শুরু হয় স্কয়া

বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান

র গ্রুপের বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশের ১০ ধনী ব্যবসায়ীর মধ্যে এ প্রতিষ্ঠানটি পাঁচ নম্বরে অবস্থান করছে , ৩০ হাজারের চেয়েও বেশি কর্মচারী কাজ করে স্কয়ার গ্রুপে।এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ৫ নাম্বার তালিকায়।

 

৪. যমুনা গ্রুপ: যমুনা গ্রুপের রয়েছে যমুনা ফিউচার পার্ক, যমুনা ফ্যান, যমুনা ফ্রিজ ,যমুনা টেলিভিশন, যমুনা বাইক আরো নানারকম ইলেকট্রনিক্স ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। নুরুল ইসলাম নাহিদের গড়া যমুনা গ্রুপ বাংলাদেশের একটি অন্যতম ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সারাদেশে শতাধিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে এ যমুনা গ্রুপের , যমুনা গ্রুপ দেশের শীর্ষ করদাতা হিসেবে মনোনীত হয়েছে কয়েকবার। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ৪ নাম্বার তালিকায়।

 

৩. মেঘনা গ্রুপ: জনগণের দিক থেকে দেশের সবচেয়ে বড় ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান হচ্ছে মেঘনা গ্রুপ। রাসায়নিক কারখানা, সিমেন্ট, সাইকেল ইত্যাদি তৈরি করে থাকে মেঘনা গ্রুপ। বাংলাদেশের ৫০ টিরও বেশি শিল্প প্রতিষ্ঠান এবং কারখানা রয়েছে মেঘনা গ্রুপের। এই মেঘনা গ্রুপ প্রতিবছর ১৫০ কোটি টাকা বেশি আয় করে থাকে ১ লক্ষেরও বেশি কর্মচারী কাজ করে এই মেঘনা গ্রুপে। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ৩ নাম্বার তালিকায়।

 

 

২. বসুন্ধরা গ্রুপ: বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান হচ্ছে বসুন্ধরা গ্রুপ এদেশে অর্থনীতিতে বসুন্ধরা গ্রুপের অবদান অন্যতম বসুন্ধরা গ্রুপে রয়েছে অনেকগুলো টিভি চ্যানেল অনলাইন মিডিয়া,খাবার, টয়লেট টিস্যু ,সিমেন্ট, পেপার ,এলপিজি গ্যাস, কনভেনশন সেন্টার সহ আরো নানা রকম ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। এই গ্রুপের বর্তমান চেয়ারম্যান সিয়াম তিনি সরকারকে অনেক বেশি ট্যাক্স এবং কর দিয়ে থাকে। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ২ নাম্বার তালিকায়।

 

 

১. এ.কে.কে লিমিটেড: চট্টগ্রাম ভিত্তিক এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৪৫ সালে। আবুল কাশেম খান এ.কে.কে খান কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা আর তার নামেই এ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নামকরণ করা হয়েছে।

গাড়ির টায়ার তৈরির ব্যবসা থেকে যাত্রা শুরু করলেও তারা রাবার, চা, ম্যাচ ফ্যাক্টরি, টেলিকম ইত্যাদি আরও নানা রকম খাতে ব্যবসা করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ও তাদের তৈরি তাদের মোট সম্পদের পরিমাণ কয়েক বিলিয়ন ডলার। এ প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে বাংলাদেশের ধনী ১০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এর ১ নাম্বার তালিকায়।

কেরানীগঞ্জে পাটের তৈরি জুতা যাচ্ছে ইউরোপ আমেরিকায়।

পুকুরে শিং মাছ চাষ করলে অধিক লাভ দেখে নিন কিভাবে চাষ করা হয়

ফেসবুকে যুক্ত হউন


আপনার মতামত লিখুন :

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ