fbpx
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৪১ অপরাহ্ন

কোরোনা ভাইরাসের টিকা নিতে আপনি কি আগ্রহী। যে বিষয়গুলো আপনার জানা খুবই জরুরী

সুমন আহম্মেদ / ৮৯২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২১
কোরোনা ভাইরাসের টিকা
কোরোনা ভাইরাসের টিকা

81 / 100

অত্যন্ত দ্রুতগতিতে তৈরি হওয়া কোরোনা ভাইরাসের টিকা নিতে আপনি কি আগ্রহী, তাহলে কিছু বিষয় জেনে রাখতে পারেন। করুনা ভাইরাসের টিকা যেহেতু এখনো নতুন তাই এটি দেওয়ার আগে কিছু নির্দেশিকা জেনে নেওয়ার ব্যাপারে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।বলে রাখা ভাল টিকা তৈরীর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ মনোযোগটা দেওয়া হয় নিরাপত্তার’ দিকে। তাই এইটা প্রয়োগের পর্যায় আসলে অনেক সাবধানতা পার করেই আসে, তারপরও যুক্তরাজ্যের সরকার ফাইজার বায়ো-এনটেক,মোর্ডানা, Astrazeneca টিকার সম্পর্কে কিছু সতর্কতার দিক জানাচ্ছেন যেটা টিকা গ্রহণকারীদের জানা দরকার। টিকা দেওয়ার আগে কিছু জটিলতা থাকলে চিকিৎসককে আগে জানাতে হবে।কোরোনা ভাইরাসের টিকা নেওয়া কি ঠিক হবে জানুন…

কোরোনা ভাইরাসের টিকা

যেমন : ১.আগে কোন টিকায় তীব্র এলার্জি থাকলে জানাতে হবে।
২. তীব্র জ্বরসহ কোনো অসুস্থতা
৩. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম
৪. রক্তপাত বা আঘাত সংক্রান্ত সমস্যা
৫. গুরুতর কোনো অসুস্থতা
৬. গর্ভবতী বা বুকের দুধ খায় এরকম শিশু থাকলে।

এগুলো চিকিৎসকে জানালে পরিস্থিতি অনুযায়ী নির্ধারণ করবেন টিকা দেওয়া যাবে কিনা। আর এসব ক্ষেত্রে সতর্কতার কারণ হলো এমন রোগীদের উপর টীকা গুলোর টায়াল হয়নি। কাছাকাছি ধরনের বিষয় আমেরিকার সিডিসি বা সেন্টাল পর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন থেকে বলা হচ্ছে। তবে কখনো কোন টিকার তীব্র এলার্জি থাকলে ঠিকানা দেওয়ার পরামর্শ সিডিসির। এছাড়া বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন অন্য কোন এলার্জি, এজমা বা হাঁপানির মতো রোগ থাকলে সেটা টিকাদানকারী কে জানাতে হবে। যেহেতু সবচেয়ে এগিয়ে থাকা তিনটি টিকার ক্ষেত্রে এমন নির্দেশনা আছে সেহেতু ধারণা করা হচ্ছে করোনা ভাইরাসের অন্যান্য টিকার ক্ষেত্রেও এ সর্তকতা থাকবে।এছাড়া টিকে বিশেষজ্ঞরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অথবা অ্যাপ দিয়ে অর্থাৎ ইউএস ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুমোদন থাকার গুরুত্ব দিচ্ছেন।

আগে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হলেও কী টিকা লাগবে?
*যেহেতু করুণা ভাইরাসে আক্রান্ত হলে এন্টি বডি দীর্ঘস্থায়ী হয়না তাই আগে থেকে আক্রান্ত হলেও আমেরিকায় এবং ব্রিটেনে টিকা দেওয়ার নির্দেশনা আছে।তবে টিকা গ্রহণের সময় আক্রান্ত থাকলে বা সুস্থ হওয়ার অল্প সময় পার হলে তাদেরকে অপেক্ষা করতে বলা হচ্ছে। কোরোনা ভাইরাসের টিকা।

কোরোনা ভাইরাসের টিকা

কোরোনা ভাইরাসের টিকা

**পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া:
আপনি কোন ঔষধ সেবন করতে গেলে এর লিফলেট এ কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কথা উল্লেখ থাকে। সাধারণত পার্শপ্রতিক্রিয়া গুলো খুব কম ক্ষেত্রেই গুরুতর হয় তেমনই ভ্যাকসিন এর ক্ষেত্রেও কিছু প্রতিক্রিয়া হতে পারে। যেমন: ফাইজার, মোর্ডানা, অক্সফোর্ড Astra zeneca টিকার ক্ষেত্রে বেশ কিছু একই ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। যেগুলো প্রতি ১০ জনের মধ্যে একজনের হতে পারে।কোরোনা ভাইরাসের টিকা।

সাধারণ পার্শপ্রতিক্রিয়া:
*যেমন ইঞ্জেকশন যেখানে দেওয়া হয় সেই স্থানে ব্যথা, ফুলে যাওয়া, বা লাল হয়ে যাওয়া ,বা মাংসপেশি অস্থিসন্ধিতে ব্যথা জ্বর উঠা, ঠান্ডা বা শীতল বোধ করা, মাথাব্যথা ,ক্লান্তি বোধ করা ইত্যাদি।

এছাড়া টিকা বেদে কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এমনই থাকে যেটা খুবই বিরল। কিন্তু ১০০ তে হাজারের মধ্যে একজনের হতে পারে। সে নির্দেশনা টিকার লিফলেটে উল্লেখ থাকবে।সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া গুলো টিকার সাথে শরীরের মানিয়ে নেওয়ার প্রতিক্রিয়া হিসেবেই দেখা হয়। তবে টিকাগুলো যেহেতু এখনও নতুন তাই টিকা নেওয়ার পর যে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াই নথিভুক্ত করাকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।কোরোনা ভাইরাসের টিকা।

টিকা নিলেই কি স্বাস্থ্যবিধি মানা লাগবে?
বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন কোনো টিকাই শতভাগ নিরাপত্তা দিতে পারে না তাছাড়া কত দীর্ঘ সময় পর্যন্ত নিরাপত্তা দেবে তা এখনো নিশ্চিত না।
তাই আমাদের সকলেরই উচিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা।

আমাদের প্রতিবেদনটি যদি আপনার ভাল লাগে তাহলে আমাদের বাংলা ফিচার ফেসবুক পেজটি ফলো করতে পারেন ধন্যবাদ আপনাকে।

কেরানীগঞ্জে পাটের তৈরি জুতা যাচ্ছে ইউরোপ আমেরিকায়।

ফেসবুকে যুক্ত হউন


আপনার মতামত লিখুন :

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ